প্র.চৌ লিখিত পাঁচটি সুসমাচার – প্রভাত চৌধুরী

+ প্রিয়জনের কাছে শেয়ার করুন +

১)

হামটি-ডামটি নামক দুটি ডল আজও আমাকে সঙ্গ দেয়

তার অর্থ এই নয় যে আমি এখনও নার্সারিতেই হাউসঅ্যারেস্ট হয়ে আছি

কে আমার বন্ধন খুলে দেবে জানি না, জানি আমার একদিকে

ম্যাজিক অন্যদিকে রিয়েল মাদ্রিদের এগারো জন, মাইগ্র্যান্টদের

কথা আপাতত ভুলে থাকুন, প্রিভিয়্যু দেখেই সিদ্ধান্ত নেবার কথা

ভাববেন না, দু-স্টেপ এগিয়ে দেখে নিন হাইওয়ে ক্লিয়ার আছে

কিনা, না থাকলে রুমসার্ভিসে ফোন করে জেনে নিন

মালটিপ্লেক্সে আত্মজীবনীমূলক কোনো মুভি দ্যাখানো হচ্ছে কিনা

না হলে মিডিয়া পার্সেনদের জন্য সময় বরাদ্দ রাখুন, জানিয়ে

দিন মিডউইকে মধ্যস্থতা করার জন্য হাজির থাকবে টম ডিক অ্যান্ড হ্যারি

২)

অন-ডিউটিতে যে বাঁশি আমি ব্যবহার করে থাকি, হ্যামলিনের

সেই বাঁশিওলা তা জানেন না, হরিপ্রসাদও তা জানেন না সম্ভবত

আমার অনুজ বন্ধুরা কিছুটা জানেন এবং বোঝেন, সাত মণ ঘি-পোড়ার

প্রসঙ্গটি ইরেজ করে দিলাম এই এপিসোড থেকে, ভ্রমাত্মক রাশিগুলিকে

পাঠিয়ে দিলাম লিভে, এতে লিভ টুগেদারের মজাটুকু বজায়

থাকবে তো, যদি না থাকে তাহলে ইনবর্ন দক্ষতায় টুপিতে

গুঁজে নেবো মেডিটরেনিঅন কোনো পাখির পালক, মনে রাখতে হবে

যে কোনো নেগলিজেনসই ক্ষমার অযোগ্য, পিউরিফাই করার

যোগ্যতা থাকলে তবেই স্কাইডাইভের কথা মনে আনবেন, নচেৎ

নগরসংকীর্তনেই তুষ্ট থাকুন, এক-পা এগিয়ে দু-পা পেছিয়ে যান

৩)

হোমোজিনিয়সি শব্দটিকে আমি ঠিক গ্রহণযোগ্য মনে করি না

কেন মনে করি না সে সম্পর্কে একজন জেরনটলজি

যতটা ওয়াকিবহাল আমাদের মতো সাধারণ মানুষজনের

অতশত বোঝার দক্ষতা নেই। আইসোলেশন ওয়ার্ডে শুয়ে থেকে

যতটা দেখা সম্ভব ততটা দেখি, যতটা বলা উচিত ততটা-ই বলি

প্রাণ খুলে সবটা বলতে পারি না, ফেয়ারিটেল থেকে অনেকেই

ডাকাডাকি করে, শুনতে পাই, কেবলমাত্র ডোনাল্ড ডাক-এর

কোনো ডাক শুনতে পাই না, পাই না বলেই জলমিশ্রিত দুধ

থেকে জলকে সরিয়ে দিতে পারি না, মিউজিক সিস্টেমে

গণ্ডগোল থাকায় ম্যাগমার কথা লেখাই হল না

৪)

আমি কি কোনো পিক আপ ভ্যানের জন্য অপেক্ষা করছি

এটা নিশ্চিতভাবে বলা যায় না, সেন্টিমেন্টকে সেপারেট করার

কোনো কৌশল আমার জানা নেই, আসক্তিতে ডুবে আছি ভাই,

একটা কুহু ধ্বনি, সেটা তো বসন্ত-র, তিনি কীভাবে বসন্তকে

রোদনে ভরিয়ে দিয়েছিলেন, তা তিনিই জানেন, আমি তো এখনও

টার্গেট প্র্যাকটিস করে চলেছি, আমার টোটেমে কোনো ট্রাইব-চিহ্ন

নেই, আছে টাচ-এর খেলা, এখানে কোনো ফ্রি-হিট নেই, পড়ে

পাওয়া চোদ্দআনা একটা কথার কথা মাত্র, কথার পিঠে কথা, আমার

পিঠে রুকস্যাক, সামনেই গিলা পাথর জোন, নিশ্বাস বন্ধ করে

পার হতে হবে, দেখুন আমি হেঁটে চলেছি, শুনুন আমার চরণধ্বনি

৫)

আমার পোটল-এর অনেকগুলো লিংক ছিঁড়ে গেছে, কাজেই আমার

কোনো ঢিল ছোঁড়া দূরত্ব নেই, আমার সম্পর্কে যাবতীয় ধারণা তৈরি

করে নিতে হবে আমার পশ-পয়জার দেখে, দু-দণ্ড চোখের বাইরে

গিয়ে দেখুন আমার পাংকটিউশনে কোনো ভুল আছে কিনা, আমি

সেমিকোলনে ভরসা রাখতে পারি না বলেই এড়িয়ে চলি, কমা-তেই

কমে থাকতে চাই, রিসেপশন কাউন্টারে সাজিয়ে রেখেছি

আমি লিখিত সুসমাচারগুলি, এগুলিকে ড্রাইআইসে

রেখে দিন, বেশ কয়েকটি মুনকোয়েক ঘটে যাওয়ার পর বের করে

নেবেন সুসমাচারগুলিকে, তখন এগুলি প্যালেটেবল বলে বিবেচিত

হবে, ততদিন মডিউলার কিচেনে রান্না হতে থাকুক আমার নিকনেম

+ প্রিয়জনের কাছে শেয়ার করুন +

Leave a Reply

Your email address will not be published.

কবিকল্পলতা অনলাইন প্রকাশনীতে কবিতা ও আবৃত্তি প্রকাশের জন্য আজ‌ই যুক্ত হন